রিয়ালকে হারিয়ে ভায়োকানোর ইতিহাস

0

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে পা রাখার আগে স্প্যানিশ লা লিগায় এক মৌসুমে দশটি ম্যাচ হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। পর্তুগিজ যুবরাজ এই মৌসুমে যোগ দিয়েছেন জুভেন্টাসে। তাতে রিয়ালে ফিরল পুরনো দুঃস্বপ্ন। কাকতালীয়ভাবে ঘরোয়া লিগের এই মৌসুমেও দশ ম্যাচ হেরে গেল লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। মৌসুমের বাকি আরো তিন ম্যাচ।

রোনালদোর অনুপস্থিতিতে মৌসুমজুড়ে রিয়ালের আক্রমণভাগ সামলেছেন করিম বেনজেমা। কালকের ম্যাচে ফরাসি স্ট্রাইকার থাকলেন দর্শক সারিতে। বেনজেমার অভাবটাও হাড়ে হাড়ে টের পেল রিয়াল। এদিন রায়ো ভায়োকানোর মাঠে গোলই করতে পারল না জিনেদিন জিদানের দল। ম্যাচটাও রিয়াল হেরে গেছে ১-০ গোলে।

গত ডিসেম্বরে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ভায়োকানোকে ন্যূনতম ব্যবধানে হারিয়েছিল রিয়াল। দ্বিতীয়বারের দেখায় সেই হারের যেন মধুর একটা প্রতিশোধই নিল ভায়োকানো। এই হারের পরও পয়েন্ট তালিকায় তিন নম্বর জায়গাটা ধরে রেখেছে রিয়াল। ৩৫ ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট তাদের। রিয়ালের চেয়ে দশ পয়েন্ট পিছিয়ে চার ও পাঁচে আছে যথাক্রমে গেটাফে ও সেভিয়া। ৮৩ পয়েন্ট নিয়ে ইতোমধ্যে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে শীর্ষে থাকা বার্সা।

ম্যাচের শুরু থেকেই রিয়ালের রক্ষণভাগকে তটস্থ করে রাখে ভায়োকানোর আক্রমণ বিভাগ। ফলের জন্য ২৩ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষায় করতে হয়েছে তাদের। পেনাল্টি থেকে গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন আদ্রি এমবারবা। ডি-বক্সে গুয়েরাকে ফাউল করে কী ভুলটাই না করেছিলেন হোসে ভায়হো।

ভিএআরের সহায়তায় পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। ভায়হোর ভুলের মাশুল দিতে পারেননি রিয়াল গোলরক্ষক থিবাউট কোর্তোয়া। পেনাল্টি থেকে রিয়াল যে গোলটা হজম করেছে সেটার আর শোধ দিতে পারেনি তারা। ৩৯ মিনিটে সমতায় ফিরতে পারতো অতিথিরা। কিন্তু গ্যারেথ বেলের গোলটা বাতিল হয়ে যায় অফসাইডের কারণে।

এই হারে বড় কোনো ক্ষতি হয়নি রিয়ালের। কারণ সেরা তিনে থাকাটা প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে জিদানের দলের। তবে এই জয়ে ইতিহাস গড়েছে ভায়োকানো। লা লিগায় দীর্ঘ ২২ বছর পর রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়েছে তারা। এই জয়ের পরও ৩১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে তাদের ঠিকানা তলানিতে; ১৯ নম্বরে।

Share.
মন্তব্য লিখুনঃ

 

',